বড় খবর:মোদীর সভায় উপস্থিত থাকবেন এই হেভিওয়েট তৃণমূল সাংসদ,আবারো ধাক্কা তৃণমূলে?

ভোট ঘোষণা হবার বেশ কিছুদিন আগে থেকেই শুরু হয়ে গেছে দল বদল। যা কোনোমতেই থামছে না। তাতে যে আরও সংযোজন হতে চলেছে টা বলাই বাহুল্য। তৃণমূলকে চাপে ফেলতে কোনো ত্রুটি রাখছে না রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপি ( BJP )। এমনকি নিয়মিত দিল্লি থেকে উড়ে এসে বাংলায় তৃণমূল সরকারের উৎখাতের ডাক দিচ্ছেন মোদী-আমিত শাহ ( Narendra Modi )। এবারে যেনো আবারো এক হেভিওয়েট তৃণমূল সাংসদ বিজেপির পথে।

আগামী ২৪ তারিখ মোদীর কাঁথির সভায় উপস্থিত থাকতে চলেছেন তমলুকের তৃণমূল সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী (Dibyendu Adhikari)। যা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে দলবদলের জোর জল্পনা শুরু হয়েছে। জানা জাচ্ছে, গেরুয়া শিবিরের তরফে সাংসদকে প্রধানমন্ত্রীর সভার আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হয়েছে। তবে তিনি ওই মঞ্চে উঠে প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে বিজেপি পতাকা তুলে নেবেন কি না, তা নিয়ে জিইয়ে রাখা হয়েছে জল্পনা।

image-ANI

উল্লেখ্য, শুভেন্দু অধিকারী ( Suvendu Adhikari ) পদ্ম শিবিরে যোগ দেওয়ার পর থেকে রাজ্যে দলবদলের যে হিড়িক লেগেছে, তা এখনও অব্যহত। একের পর হেভিওয়েট নেতারা যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে। এমনকি এদিন শুভেন্দুর ভাই দিব্যেন্দুর প্রধানমন্ত্রীর সভায় যোগ দেওয়ার প্রসঙ্গ উঠে এলে, রাজনৈতিক মহল শুভেন্দুর করা একটি মন্তব্য নিয়ে জোর চর্চা করছে। দলবদল পর্বে শুভেন্দু বলেছিলেন, রামনবমীর আগেই তাঁর বাড়িতে আরও পদ্ম ফুটবে। সেই থেকেই শুরু হয়েছিল কানাঘুষো।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে একসঙ্গে ৮টি প্রশাসনিক পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন তমলুকের এই সাংসদ। এমনকি ছেড়ে ছিলেন রাজ্য সরকারের প্রতিনিধির পদও। তারপর থেকেই দিব্যেন্দুর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার জল্পনা জোরদার হয়ে ওঠে। তবে তারপর থেকে ১ মাসেরও অধিক সময় কেটে গেলেও তিনি তৃণমূল ( TMC ) ত্যাগ করেন নি।

এবার কাঁথিতে প্রধানমন্ত্রীর সভায় যোগ দিয়ে তিনি কি সব জল্পনার অবসান ঘটাতে চলেছেন ? এমনই প্রশ্ন ঘুরছে রাজনৈতিক মহলের সর্বত্র।